কার্যালয়ে তালা, ইভ্যালি বলছে হোম অফিস

121

ক্রেতার অর্ডার করা পণ্য দিতে গড়িমসি; নানা অনিয়ম আর প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে চলছে ব্যবসা; সম্পদের চেয়ে ছয় গুণ বেশি দেনা। এমন সব অভিযোগের কারণে ইভ্যালির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করছে অনেক ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান। তাদের গিফট ভাউচারেও দিচ্ছে না পণ্য। অন্যদিকে মূল্য ফেরত পাচ্ছেন না গ্রাহক। এমন পরিস্থিতিতে প্রধান কার্যালয় বন্ধ রেখেছে ইভ্যালি। এতে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ গ্রাহকরা।

রাজধানীর ধানমন্ডির সোবহানবাগে ইভ্যালি প্রধান কার্যালয়ে গিয়ে অনেক গ্রাহক অফিস বন্ধ দেখে হতাশ হয়ে ফিরে আসছেন। প্রতিষ্ঠানটির হট লাইনে কল করলেও ব্যস্ত দেখাচ্ছে। ইভ্যালি বলছে, করোনার কারণে এখন অফিস বন্ধ। তবে অনলাইনে গ্রাহকদের সব ধরনের সেবা দেওয়া হচ্ছে।

ইভ্যালির কার্যালয় বন্ধের বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির জনসংযোগ বিভাগ থেকে লিখিত জানানো হয়, ইভ্যালির কার্যালয় বন্ধ নয় বরং করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার নির্ধারিত বিধিনিষেধের আলোকে দাফতরিক কাজ পরিচালনা করা হচ্ছে। শুধু জরুরি সেবা কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পর্কিত বিভাগের লোকবলই অফিসে উপস্থিত হয়ে সরাসরি কাজ করছেন। আমাদের তিনটি ওয়্যারহাউজ আছে। সেখানেও আমাদের কর্মীরা গ্রাহকদের পণ্য সরবরাহের কাজে নিয়োজিত আছেন। গ্রাহকেরা নিয়মিতভাবে তাদের অর্ডার করা পণ্যের ডেলিভারি পাচ্ছেন।

সরকারি বিধিনিষেধের আলোকে ব্যাপক লোক সমাগম এড়াতে অফিস থেকে সশরীরে গ্রাহক সেবা দেওয়া সাময়িক বন্ধ আছে। তবে গ্রাহকেরা আমাদের ওয়েবসাইট, অ্যাপ প্ল্যাটফর্ম ও ফেসবুক থেকে নিয়মিত সেবা নিতে পারছেন। একই সঙ্গে আমাদের গ্রাহক সেবা কেন্দ্র হটলাইন নম্বর প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত সক্রিয় আছে। লকডাউন ব্যতীত এই সেবা ২৪ ঘণ্টা, সপ্তাহের সাত দিনই চালু থাকে।

তবে গ্রাহকরা অভিযোগ করছেন, মাসের পর মাস যাচ্ছে, কেনা পণ্য ডেলিভারি দিচ্ছে না ইভ্যালি। কার্যালয় বন্ধ। তাদের হটলাইনে ফোন করেও কোনো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। এমন অভিযোগের পর ইভ্যালির কাস্টমার কেয়ারে (০৯৬৩৮১১১৬৬৬) ফোন করা হয়। প্রথমে নেটওয়ার্ক ব্যস্ত দেখালেও পরে কল ঢোকে, কিন্তু কাস্টমার কেয়ারের কেউ কলটি ধরেননি।

এদিকে ইভ্যালির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ বেশকিছু পণ্য সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর ভাউচারের বিপরীতে পাওনা অর্থ পরিশোধ না করায় তারা আর পণ্য দিচ্ছে না। সম্প্রতি ইভ্যালির গিফট ভাউচারে কেনাকাটার নিষেধাজ্ঞা দিয়ে বেশকিছু প্রতিষ্ঠান বিজ্ঞপ্তিও দিয়েছে।

এমনই একটি প্রতিষ্ঠান দেশি পোশাকের ব্র্যান্ড ‘রঙ বাংলাদেশ’। প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকের উদ্দেশ্যে দেওয়া বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, গ্রাহকদের কেনা গিফট ভাউচারের পেমেন্ট ইভ্যালি আমাদের পরিশোধ না করায় ভাউচারটি এই মুর্হূতে গ্রহণ করা সম্ভব হচ্ছে না। ভবিষ্যতে পেমেন্ট পরিশোধ করলে আপনি অবশ্যই এই ভাউচার ব্যবহার করে কেনাকাটা করতে পারবেন। এমতাবস্থায় ইভ্যালি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করার কথা জানিয়েছে ‘রঙ বাংলাদেশ’।

Leave A Reply

Your email address will not be published.