দেশে সোনার দাম কমছে

304

বিশ্ববাজারে দরপতনের কারণে দেশের বাজারে সোনার দাম ভরিতে ১ হাজার ৯৮৩ টাকা কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি। তাতে এক সপ্তাহের আগের দামের ফিরছে সোনার দাম। তবে রুপার দাম অপরিবর্তিত থাকবে। নতুন দর কাল বুধবার সারা দেশে কার্যকর হবে।

বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটি আজ মঙ্গলবার রাতে সোনার দাম কমানোর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পরে সেটি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়। সর্বশেষ ৬ জানুয়ারি সোনার দাম ভরিতে ১ হাজার ৯৮৩ টাকা বাড়িয়েছিল বাজুস।

সমিতির নেতারা জানান, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় শঙ্কিত বৈশ্বিক অর্থনীতি, ডলার ও তেলের দরপতন, আন্তর্জাতিক ও দেশের বাজারে সোনার দাম উত্থান–পতন সত্ত্বেও ব্যবসার অচল অবস্থা কাটাতে ও ভোক্তা সাধারণের কথা চিন্তা করে ভরিতে ২ হাজার টাকা কমানো হলো। অবশ্য সমিতির নেতারা ৫ জানুয়ারি সোনার দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত যখন নেন তখন বিশ্ববাজারে প্রতি আউন্সের (৩১.১০৩৪৭৬৮ গ্রাম) দাম ছিল ১ হাজার ৯৫১ ডলার। আর আজ মঙ্গলবার দাম কমে হয়েছে ১ হাজার ৮৪৫ ডলার।

 

গত বছরের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ১৪ বার দেশের বাজারে সোনার দাম পরিবর্তন হয়েছে। তার মধ্যে আটবার বেড়েছে, কমেছে ছয়বার। শেষ পর্যন্ত প্রতি ভরির দাম বেড়েছে ১২ হাজার ৩০৬ টাকা। তার মানে প্রতি মাসে গড়ে ১ হাজার টাকার বেশি দাম বেড়েছে গত বছর। সেই ধারাবাহিকতায় চলতি বছরের প্রথম মাসেই দুই দফা সোনার দামে পরিবর্তন এল।

গত বছরের ৬ আগস্ট দেশের বাজারে প্রতি ভরি সোনার দাম বেড়ে ৭৭ হাজার ২১৬ টাকায় দাঁড়ায়। এটি দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ দাম। অথচ ১৯৭১ সালে সোনার ভরি ছিল ১৬০ টাকা। তার মানে গত পাঁচ দশকে সোনার দাম বেড়েছে ৪৬৬ গুণ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.