লকডাউনেও অতি দ্রুত টাকা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের সোনালী এক্সচেঞ্জ

104

বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতির ক্রম অবনতি হচ্ছে। করোনার ভয়াল থাবায় দেশে অবস্থানরত আত্মীয়-স্বজনদের জন্য সকল প্রবাসীই চিন্তিত। আর কয়েকদিন পর আসছে পবিত্র ঈদুল আজহা। কোরবানির পশু ক্রয়, পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনদের বিভিন্ন ব্যয় নির্বাহ, গরীব-দুঃখীদের সহযোগিতা করার জন্য প্রায় প্রত্যেক প্রবাসীই দেশে টাকা পাঠানোর কথা চিন্তা করছেন। কিন্তু চলমান লকডাউনের কারণে বাংলাদেশের ব্যাংকগুলোর সেবা কিছুটা সীমিত হয়েছে। ব্যাংক সপ্তাহে চার দিন খোলা থাকছে। আবার আগামী ২০ থেকে ২২ জুন পর্যন্ত বাংলাদেশে ঈদের ছুটি।
এমতাবস্থায় সোনালী ব্যাংকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান নিউইয়র্কের ‘সোনালী এক্সচেঞ্জ ইনক’ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঈদের বন্ধ কবে হবে এটা চিন্তা না করে গ্রাহদের যথাসম্ভব তাড়াতাড়ি দেশে টাকা পাঠাতে বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছে। এ পরিস্থিতিতে সর্বোচ্চ গ্রাহক সেবা দেয়ার জন্যে দেশে সোনালী ব্যাংকের সকল শাখা সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১:৩০ মি. পর্যন্ত চালু রাখছে। ফলে সোনালী এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে টাকা পাঠালে যথাসময়ে গ্রাহকের টাকা প্রাপ্তি নিশ্চিত হবে। ব্যাংক খোলার সাথে সাথে টাকা পাওয়ার জন্য সোনালী এক্সচেঞ্জের ক্যাশ পিকআপ সিস্টেমটাও ব্যবহার করা যেতে পারে। শুধু প্রাপকের বাংলাদেশের ন্যাশনাল আইডি কার্ড বা ভোটার আইডিতে যে নামটি রয়েছে সেটি ও তার টেলিফোন নাম্বারটি নিয়ে সোনালী এক্সচেঞ্জের যেকোন শাখায় টাকা পাঠালে এই খারাপ পরিস্তিতির মধ্যেও টাকা দ্রুত পাওয়া যাবে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সোনালী ব্যাংকের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হিসেবে সোনালী এক্সচেঞ্জ প্রবাসীদের সবচেয়ে পুরনো ও বিশ^স্ত বন্ধু। যেকোন পরিস্থিতিতে প্রবাসীদের সর্বোচ্চ সেবা দিতে তারা সবসময়ই প্রস্তুত। দ্রুত এবং নির্ভুল সেবা প্রদানে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছে সোনালী এক্সচেঞ্জ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.